মেনু নির্বাচন করুন
গল্প নয় সত্যি

ঘটনাপুঞ্জ

একজন ব্যক্তি ছিলেন যাঁর ছিল চার পুত্র। তিনি চাইছিলেন যে তাঁর পুত্ররা সবকিছু খুব দ্রুত বিচার না করতে শিখুক। সুতরাং তিনি তাদের প্রত্যেককে, পালাক্রমে, বহু দূরের একটি নাশপাতি গাছ দেখার জন্য একটি অনুসন্ধান অভিযানে প্রেরণ করলেন। প্রথম পুত্রটি শীতকালে গেল, দ্বিতীয় পুত্র বষন্তকালে গেল, তৃতীয় পুত্র গ্রীষ্মকালে গেল এবং সবচেয়ে ছোট পুত্র শরৎকালে গেল।
যখন তাদের সবাই গেল এবং ফিরে এল, তিনি তাদেরকে একসাথে ডাকলেন তারা কী দেখেছে তা বর্ণনা করার জন্য। প্রথম পুত্র বলল যে গাছটি ছিল কুৎসিত, কুঁজো ও পাকানো। দ্বিতীয় পুত্রটি বলল যে, “না, এটি সবুজ কুঁড়িতে ঢাকা ছিল এবং প্রতিশ্রুতিময় ছিল।” তৃতীয় পুত্র দ্বিমত পোষন করল; সে বলল যে এটি ফুলে ভরা ছিল যার সুবাস এত মিষ্ট ও দেখতে এত সুন্দর ছিল যে এটি তার দেখা সর্বাপেক্ষা সুন্দর জিনিস ছিল। সর্বশেষ পুত্র তাদের সবার সাথেই দ্বিমত পোষন করল; সে বলল যে এটি ছিল পরিপক্ক ও ফলের ভারে অবনত, পরিপূর্ণতা ও জীবনীশক্তিতে টইটম্বুর।
লোকটি তখন তার পুত্রদেরকে ব্যাখ্যা করল যে তারা সবাই সঠিক ছিল, কারন তাদের প্রত্যেকে গাছটির জীবনের কেবলমাত্র একটি ঋতুই দেখেছে। তিনি তাদেরকে বললেন যে তোমরা কোন গাছ বা কোন ব্যক্তিকে কেবলমাত্র একটি ঋতু দিয়েই বিচার করতে পার না, এবং তাদের পরিচয়ের মর্ম, উক্ত জীবন হতে যে আনন্দ, সুখ ও প্রেম আসে তা কেবলমাত্র সর্বশেষেই পরিমাপ করা যায় যখন সকল ঋতু শেষ হয়ে যায়।

যদি তুমি শীতকালে হাল ছেড়ে দাও, তবে তুমি বষন্তের প্রতিশ্রুতি, গ্রীষ্মের সৌন্দর্য্য, ও শরতের পরিপূর্ণতা লক্ষ্য করতে ব্যর্থ হবে। একটিমাত্র ঋতুর কষ্ট দ্বারা বাকী সকল ঋতুর আনন্দকে ধ্বংস হতে দিওনা। কেবলমাত্র একটি কষ্টকর ঋতু দ্বারা জীবনকে বিচার কোর না। কষ্টকর অংশগুলোতে অধ্যাবসায়ের সাথে এগিয়ে যাও এবং কিছু সময় পর বা পরবর্তীতে নিশ্চিতভাবেই উত্তম সময় আসবে।


Share with :

Facebook Twitter